চাইলেই সম্ভব

সব চাওয়া সঠিক কি? সব চাওয়া পূরণ হওয়া কতটা সম্ভব? আম জনতার কথা বাদ, এসব প্রশ্নের উত্তর নিয়ে স্বয়ং রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরও নিশ্চিত ছিলেন না। আমরা দেখি, কবিতা ও গানে তিনি একাধিকবার এই কথা বলেছেন যে- ‘যাহা চাই তাহা ভুল করে চাই, যাহা চাই তাহা পাই না।’ সঠিকভাবে চাইলেও কি তা সবসময় পূরণ সম্ভব? এই যে আমরা তারস্বরে চিৎকার করে আসছি, বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প কিংবা সরকারি ক্রয়কাজে অস্বাভাবিক ব্যয়ের লাগাম টানা প্রয়োজন; আমাদের সেই চাওয়া পূরণ হয় কি? আমরা বলছি যে, কোনো প্রকল্প বাস্তবায়নে দফায় দফায় মেয়াদ ও ব্যয় বৃদ্ধি নিয়েও জনপরিসরে কম আলোচনা হয় না। কিন্তু জনতার সেই প্রত্যাশা পূরণ হয় কি? অন্তত কিছু কিছু ক্ষেত্রে যে চাইলে সম্ভব, মঙ্গলবার সমকালে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনের ভাষ্য তা প্রমাণ করেছে। প্রতিবেদনটিতে বলা হয়েছে, ‘দ্বিতীয় কাঁচপুর, মেঘনা, গোমতী সেতু’ প্রকল্পে প্রাক্কলনের চেয়ে ব্যয় কমেছে প্রায় দেড় হাজার কোটি টাকা। উন্নয়ন প্রকল্পে যেখানে দফায় দফায় ব্যয় বাড়ানোই ‘নিয়ম’ হয়ে দাঁড়িয়েছে; বিশেষত অবকাঠামো নির্মাণ প্রকল্পে যেখানে তিন থেকে চার গুণ ব্যয় বাড়ানোর নজির রয়েছে; সেখানে এই নজির সত্যিই উৎসাহব্যঞ্জক। প্রাক্কলিত ব্যয় কমে আসার কারণ সম্পর্কে পরিকল্পনা কমিশনের ভৌত অবকাঠামো বিভাগের সচিব সমকালকে বলেছেন, এর মূলে রয়েছে প্রকল্পের আন্তর্জাতিক অংশীদার ও সরকারের পক্ষ থেকে নিবিড় পর্যবেক্ষণ ও প্রয়োজনীয় পরামর্শ।

Somokal

Close Menu